বাংলা ইউনিকোড ফন্টের প্রসার চাই

ইউনিকোড ফন্ট সম্পর্কে খুব যে বেশী একটা জানি তা নয়। কিংবা সরাসরি ফন্ট ডেভলপমেন্ট নিয়ে কাজ করার মতো প্রতিভাধর লোক ও আমি নই।অভ্র ব্যবহার করছি মাত্র কযেকদিন। প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক – কেনো এহেন শিরোনাম?

আজ বিজয় বনাম অভ্র প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলতে গেলে কথা বাড়তেই থাকে। বলা নিস্প্রয়োজন ভাষাবানিজ্যের পক্ষের হাতেগোনা “সাহসী” ব্যক্তিদের মধ্যে আমি কেউ নই। আজ ওয়েবের পাতায় পাতায় বাংলা ভাষার বিচরণটুকুর কৃতিত্ব অভ্রকে দিতে হবে বলে অন্য কোথাও আর একে ব্যবহার করা যাবেনা এই ধারণাটা মানতে কষ্ট হচ্ছে অনেক।

অভ্র বনাম বিজয় শীর্ষক এযাবৎকালের বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন যুদ্ধটা শুরু হবার পর অভ্রের ব্যাপারে এই একটা অনুযোগই বেশী শোনা গেছে – “প্রিন্ট মিডিয়াতে অভ্র ব্যবহার কষ্টসাধ্য” । অনুযোগ শোনা গেছে স্যান্স সেরিফ ইউনিকোড ফন্টগুলোকে নিয়েও। কিন্তু কতটুকু ব্যবহার করেছি আমরা এই ফন্টগুলো?

অভ্রের ডিফল্ট ফন্ট হচ্ছে সিয়াম রুপালী। অভ্র ইনস্টল করার সময় এটিই ডিফল্ট ইনস্টল হয়ে যায় আপনার কম্পিউটারে। বিদ্যাসাগরীয় ফন্টের মতো নয় বলে প্রিন্ট মিডিয়াতে এর ব্যবহার না হওয়াটাই স্বাভাবিক। কিন্তু কতজন অভ্র ব্যবহারকারী জানছে এই ফন্টগুলোর কথা? কতজন অভ্র ব্যবহারকারী সিয়াম রূপালী সহ অন্য ফন্টগুলোকে চিনছে? সহজে একটি বাটন চেপে ফন্ট পরিবর্তনে অভ্র নিঃসন্দেহে লেখার সুবিধা করে দিয়েছে অনেক কিন্তু যে ইউনিকোড ফন্টগুলো আমাদের দেশের আনাচে কানাচে লুকিয়ে থাকা ডিজাইনার রা আমাদের জন্য তৈরী করে দিচ্ছে তার ব্যবহার হচ্ছে কতটুকু? কতটুকু সম্মান দিচ্ছি তাদের কাজের?

কালপুরুষ সম্পর্কে সকলের ধারণা বদলাতে বাধ্য হবে বলে আশা রাখছি। প্রিন্ট মিডিয়াতে নি:সন্দেহে ব্যবহারযোগ্য একটি ফন্ট এটি। নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বড় ভাই বলে নয়, সত্যি এটাই যে সিয়াম ভাই কখন এই বিশাল কাজটুকু করেছেন তা জানার সৌভাগ্য আমার হয়নি কিন্তু যা করেছেন তা আশা করি সবাই দেখেছেন, দেখছেন।

অভ্রকে যদি প্রিন্ট মিডয়াতে সত্যিকার অর্থে আমাদের প্রতিষ্ঠিত করতে হয় তবে অবশ্যই এইসব ফন্টের প্রসার জরুরী। বিজয় এর একচেটিয়া প্রাধান্যের বেড়াজাল থেকে বের হতে হলে অবশ্যই দরকার এই সব ফন্টের প্রকৃত প্রসার এবং ব্যবহার। একটি ফন্ট ডেভলপমেন্ট টিম কাজ করছে আজ অভ্রকে প্রিন্ট মিডিয়াতে আনার জন্য। আসুন, শুধু সহজে ওয়েব এ বাংলা লেখার মাধ্যম নয়, অভ্রকে আমরা প্রকাশ করি বাংলা লেখার পূর্ণাঙ্গ একটি মাধ্যম হিসেবে। সেই সূত্রে শুধু অভ্রের প্রচার নয়, এর সাথে আসা এইসকল ইউনিকোড ফন্টগুলোকেও পরিচিত করতে হবে সবার মাঝে। সিয়াম রূপালী, সোনার বাংলা কিংবা নতুন আগত কালপুরুষ ই হোক আমাদের লেখনীর হাতিয়ার।আসুন, এডোবি ফটোশপ বা ইলাস্ট্রেটর সহ অন্যান্য সফটওয়্যারগুলিতে ব্যবহার্য কনভার্টার সমূহ যোগ করে অভ্রকে আমরা পূর্ণাঙ্গ করতে সহায়তা করি। ভাষা বানিজ্যের প্রাচীর ভেঙে ভাষা উন্মুক্ত হোক!

কালপুরুষসহ সকল ইউনিকোড বাংলা ফন্টের প্রচার ও প্রসারের দাবি জানাচ্ছি!